১৮ অক্টোবর২০১৭, ৩ কার্তিক১৪২৪
1024x90-ad-apnar

স্ক্র্যাপ জাহাজের ওপর আরোপিত ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারে দাবি

Monday, 05/06/2017 @ 8:04 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্ট১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারে দাবিগ্রাম : ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে শিপ ব্রেকিং এণ্ড রিসাইক্লিং ইন্ডাস্ট্রির কাঁচামাল স্ক্র্যাপ ভ্যাসেলের ওপর স্পেসিফিক ডিউটির পরিবর্তে আরোপিত ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারে দাবি। সোমবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ শিপ ব্রেকিং এণ্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তারা এই দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. আবু তাহের জানান, দেশের ৫ শতাধিক রি-রোলিং কারখানার কাঁচামাল হিসেবে স্ক্র্যাপের বার্ষিক চাহিদা ৪০ লাখ মেট্রিকটন। ৮০ ভাগ জাহাজ পুনপ্রক্রিয়াজাতকরণে এ খাত থেকে জোগান দেওয়া হচ্ছে। ফলে লোহার স্ক্র্যাপ আমদানি খাতে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হচ্ছে। এ শিল্পকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১১ সালে দেশের গুরুত্বপূর্ণ শিল্প ঘোষণা করেছেন।

তিনি বলেন, আবাসন শিল্পসহ বিভিন্ন ধরনের নির্মাণকাজে ব্যবহার হচ্ছে রি-রোলিং কারখানার রড, এঙ্গেল, বার প্রর্ভতি লৌহসামগ্রী। এসব লৌহসামগ্রীর মূল্য সহনীয় রাখার ক্ষেত্রে শিপ ব্রেকিং ও রিসাইক্লিং শিল্পের গুরুত্ব অপরিসীম।

সম্মেলনে জানানো হয়, স্ক্র্যাপের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাটের কারণে স্ক্র্যাপের মূল্য বাড়বে। ফলে লোহার রড, এঙ্গেল, বারসহ বিভিন্ন লৌহসামগ্রীল দাম ৭ থেকে ৮ হাজার টাকা বাড়বে। যা দেশের অবকাঠমোগত উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করবে। স্ক্র্যাপ জাহাজের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ৫ শতাং আরডি প্রত্যাহার করে গেল অর্থবছরের মত শুল্কহার নির্ধারণের সুযোগ দিতে অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য এইউএম জাহাঙ্গীর চৌধুরী, সদস্য মাস্টার আবুল কাসেম, কামাল উদ্দীন আহমদ, এম সোলায়মান, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।