২০ মার্চ২০১৯, ৬ চৈত্র১৪২৫
1024x90-ad-apnar

মুসলমান হওয়ায় ফ্ল্যাট ভাড়া দিতে অস্বীকৃতি

Wednesday, 27/05/2015 @ 1:08 pm

muslim woman denied flat in mumbai_67544 copy

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের বন্দর নগরী মুম্বাইয়ের এক নারী অভিযোগ করেছেন, তিনি মুসলমান হওয়ায় তাকে ফ্ল্যাট ভাড়া দিতে অস্বীকৃতি জানানো হয়েছে। এছাড়া এক মধ্যস্থতাকারী তাকে হয়রানি ও হুমকি দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ওই নারী। যদিও পরে অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করায় তাকে ফ্ল্যাট ভাড়া দেওয়া হয়। ভারতের গণমাধ্যমে এই ঘটনার ব্যাপক সমালোচনা করা হচ্ছে।

মিসবাহ কাদরী নামের ওই নারী অভিযোগ করেন, তিনি মুম্বাইয়ের সাংভি হাউজিংয়ে একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সাংভি হাউজিং সোসাইটির পক্ষ থেকে তাকে বলা হয়, আমরা মুসলমানদের ভাড়া দিই না। ২৫ বছর বয়সী মিসবাহ বলেন, অনেক খোঁজাখুজির পর তিন বেডরুমের একটি ফ্ল্যাট খুঁজে পাই। আমার সঙ্গে আরো দু’জন ছিল যাদের সঙ্গে আমার ফেসবুকে পরিচয় হয়েছে।

ওই সোসাইটির সুপারভাইজার তাকে বলেন, এই হাউজিংয়ে কোনো মুসলমান পরিবার ভাড়া দেওয়া হয় না। আর যদি নিতে হয় তাহলে তাকে অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করতে হবে। অঙ্গীকারনামার শর্ত হল- অ্যাপার্টমেন্টে থাকার পর কেউ যদি ধর্মের কারণে তাদের হয়রানি করেন তাহলে এর জন্য হাউজিং কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। এরপর বাধ্য হয়ে তিনি সেই অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করেন। কারণ তিনি আগের ফ্ল্যাটটি ছেড়ে দিয়েছেন।

এক সপ্তাহ পর তাকে ওই সুপারভাইজার ডেকে নেন এবং ফ্ল্যাট ছেড়ে দিতে বলেন। নয়তো বের করে দেওয়া হবে বলেও হুমকি দেন। এতে তিনি ও তার দুই হিন্দু ফ্ল্যাটমেট অবশেষে বাসা ছেড়ে দিতে বাধ্য হন।

সোসাইটির পক্ষ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। আইনজীবী এবং মানবাধিকার কর্মী শেহজাদ পুনওয়ালা জানিয়েছেন, তিনি রাজ্যের সংখ্যালঘু কমিশনকে বিষয়টি জানিয়েছেন। এর আগে একটি কোম্পানিতে এক মুসলিম যুবককে চাকরি দিতে অস্বীকার করায়ও ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।