১৯ সেপ্টেম্বর২০১৮, ৪ আশ্বিন১৪২৫
1024x90-ad-apnar

বান্দরবানে নীলগিরি-নীলাচলে অতিথি পরায়ণ মেঘ ভিজিয়ে দিয়ে যায় পর্যটকদের শরীর

Saturday, 26/09/2015 @ 10:26 am

বান্দরবানে নীলগিরি-নীলাচলে অতিথি পরায়ণ মেঘ ভিজিয়ে দিয়ে যায় পর্যটকদের শরীর

বান্দরবানে নীলগিরি-নীলাচলে অতিথি পরায়ণ মেঘ ভিজিয়ে দিয়ে যায় পর্যটকদের শরীর

বিনোদন প্রতিবেদক: ঈদের ছুটিতে প্রকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বান্দরবানের পর্যটন স্পটগুলো পর্যটকদের আগমনে মুখোরিত হয়ে ওঠেছে।
অপার সৌন্দর্য মন্ডিত পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবানে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পর্যটকরা ছুটে এসেছেন পাহাড়, ঝিরি-ঝর্ণা আর সবুজ-শ্যামল প্রকৃতির টানে। বান্দরবানের নয়নাবিরাম বিস্তৃত পাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন পর্যটকরা। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভুমি খ্যাত বান্দরবানের পাহাড়ের চূঁড়ায় গড়ে তোলা নীলাচল এবং নীলগিরি পর্যটন স্পটে অতিথি পরায়ণ মেঘ ভিজিয়ে দিয়ে যাচ্ছে পর্যটকদের শরীর।

হোটেল মালিক সমিতির নেতারা জানিয়েছেন, থাকার ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য ঈদের কয়েক দিন আগে থেকেই হোটেল-মোটেলগুলো বুকিং দিয়ে রেখেছেন।

স্থানীয় প্রশাসন পর্যটকদের আগমনকে কেন্দ্র করে বান্দরবানে অতিথিরা যেন নিরাপদে ও ভালোভাবে আনন্দ-ভ্রমণ করতে পারে সেজন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা করেছেন। পর্যটক হয়রানির কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন পুলিশ প্রশাসন।

Bandarban-Tourism-news-pic-4-31-7-14প্রতিবছর ঈদের ছুটিতে প্রকৃতির মাঝে একটু হারিয়ে যেতে বান্দরবানে আগমন ঘটে ভ্রমণ পিপাসু দেশি-বিদেশি হাজারো পর্যটকের। পাহাড়ের চূঁড়ায় গড়ে তোলা নীলাচল এবং নীলগিরি পর্যটন স্পটে অতিথি পরায়ণ মেঘ ভিজিয়ে দিয়ে যাচ্ছে পর্যটকদের শরীর।

নীলাচল ও নীলগিরি পর্যটন স্পটে গেলে দেখা যায় মেঘ দল বেঁধে উড়ে চলে যাচ্ছে অজানার উদ্দেশে। আর শৈলপ্রপাত, রিঝুক ঝর্ণা এবং কিংবদন্তি বগালেকের স্বচ্ছ শীতল পানিতে গা ভাসাচ্ছেন হাজারো পর্যটক। এছাড়াও পাহাড়ের সঙ্গে মেঘের মিতালি এবং লুকোচুরি খেলার দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন পর্যটকরা। পর্যটনের অফুরন্ত সম্ভাবনাময় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বান্দরবানে রয়েছে অসংখ্য পর্যটন স্পট।

এ জেলায় রয়েছে দেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ বিজয়, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ কেউক্রাডংসহ অসংখ্য পাহাড়। রয়েছে বাংলার দির্জিলিংখ্যাত চিম্বুক, নীলগিরি, যেখানে অনায়াসে মেঘের ছোঁয়া পাওয়া যায়।

এছাড়াও রিঝুক ঝর্ণা নিজস্ব গতিতে সব মৌসমেই থাকে সচল। এছাড়া জেলা সদরেই রয়েছে মেঘলা, নীলাচল, প্রান্তিকলেক, স্বর্ণ জাদি। নীলাচলে দাঁড়ালে পাহাড় আর আকাশের মিতালি, দূরে সবুজ বন কিংবা চট্টগ্রামের সমুদ্র সৈকতের সৌন্দর্য আবছা আবছা উপভোগ করা যায়। পাহাড় থেকে শহরের সৌন্দর্য বিমোহিত করে পর্যটকদের।

বৌদ্ধ ধাতু জাদি বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের তীর্থ স্থান হলেও পাহাড়ের উপর সুন্দর কারুকার্য ও স্বর্ণাভরণে তৈরি হওয়ায় এটিও পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় স্পট হিসেবে প্রাধান্য পেয়েছে।

dsc04104বান্দরবানের রুমা উপজেলায় রয়েছে দেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ বিজয়, এটি তাজিংডং নামেই পরিচিত। একই সড়কে ১৭ কি.মি. গেলে দেখা যায় কিংবদন্তী বগালেক। এটি পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় স্পট।

এছাড়াও এই জেলায় মারমা, ত্রিপুরা, মুরুং, বম, তঞ্চঙ্গ্যা, খুমি, খেয়াং, পাংখোয়া, চাকমা, চাক, লুসাই, বাঙালিসহ ১২টি আদিবাসী সম্প্রদায় বসবাস করে। দেশের অন্য কোনো জেলায় এত আদিবাসীর বসতি নেই। আদিবাসীদের বৈচিত্রময় জীবনচিত্র মানুষের মনকে উৎফুল্ল করে তোলে। বান্দরবানে যেদিকে চোখ যায় দেখা মিলবে এ পাহাড়ি সমুদ্রের। এই যে অপার বিস্ময়। যে দিকে দুচোখ যাকে-অপার সৌন্দর্যে মুগ্ধ করবে।