১১ ডিসেম্বর২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ১৪২৫
1024x90-ad-apnar

এবারের বাজেট হবে ব্যবসাবান্ধব: এনবিআর চেয়ারম্যান

Thursday, 07/05/2015 @ 1:23 pm

NBR11431000163চট্টগ্রাম অফিস: জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান বলেছেন আসন্ন বাজেট হবে ব্যবসা ও করদাতা বান্ধব। কর আদায়ে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে অডিট সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সার্বিক কর্মকা-ের বিষয়ে অডিট করার তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও এ ব্যাপারে নির্দেশনা দেন এনবিআর চেয়ারম্যান।তিনি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত প্রস্তাবসমূহ আসন্ন বাজেটে বিবেচনা করার আশ্বাস দেন এবং এনবিআর- এর কার্যক্রম নিয়ে আরো সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনার কথা জানান।আসন্ন ২০১৫-১৬ অর্থ বছরের জাতীয় বাজেটকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদে চট্টগ্রাম চেম্বার মিলনায়তনে চট্টগ্রাম চেম্বারের উদ্যোগে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এনবিআর চেয়ারম্যান একথা বলেন।

মতবিনিময়ের শুরুতে সূচনা বক্তব্যে চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম আসন্ন বাজেটে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে ১৪৩টি প্রস্তাব উপস্থাপন করেন। বক্তব্যে চেম্বার সভাপতি কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ, চট্টগ্রাম শহরের রিং রোড বাস্তবায়ন, বন্দর সম্প্রসারণে ৬ কি.মি. বে-টার্মিনাল নির্মাণ, মহেশখালীতে এলএনজি টার্মিনাল ও কয়লা ভিত্তিক ১৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন এবং মিরসরাই ও আনোয়ারায় বিশেষায়িত শিল্পাঞ্চল তৈরি, চট্টগ্রামের অবকাঠামো উন্নয়নে বাজেটে বিশেষ বরাদ্দের দাবি জানান।চেম্বার সভাপতি সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সহিংসতার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত প্রাইভেট সেক্টরসমূহে সহায়তা প্রদান এবং রপ্তানী বৃদ্ধিতে সুনির্দিষ্ট মহাপরিকল্পনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। মতবিনিময় সভায় চেম্বার পরিচালক মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, জহিরুল ইসলাম চৌধুরী (আলমগীর), কামাল মোস্তফা চৌধুরী, মাহবুবুল হক চৌধুরী (বাবর), মোঃ জহুরুল আলম, এস. এম. শামসুদ্দিন, অঞ্জন শেখর দাশ ও মোঃ আরিফ ইফতেখারসহ প্রাক্তন পরিচালকবৃন্দ, রাজস্ব বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, চট্টগ্রামের কর ও শুল্ক কমিশনারবর্গ এবং বিভিন্ন খাতের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সমাপনী বক্তব্যে চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ চট্টগ্রাম বন্দরের অভ্যন্তরে চিটাগাং চেম্বার পরিচালিত এলএমডি কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে এনবিআরের সর্বাত্মক সহায়তা কামনা করেন এবং বন্দর ও কাস্টমস’র সর্বোচ্চ সক্ষমতা নিশ্চিত করার অনুরোধ জানান।

সভায় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (শুল্ক নীতি) মোঃ ফরিদ উদ্দিন মাঠ পর্যায়ে আয়কর দাতাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে প্রতি তিন মাস অন্তর সভা আয়োজনের মাধ্যমে পার্টনারশীপ ডেভেলপমেন্টের উপর গুরুত্বারোপ করেন। সদস্য (কর নীতি) পারভেজ ইকবাল ব্যবসায়ীদের ব্যবসা পরিচালনা এবং রাজস্ব আদায় উভয়কেই উইন উইন অবস্থায় রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান। পাশাপাশি এ বছরই অনলাইনে সকল প্রকার মূসক ও কর পরিশোধ করার পদ্ধতি চালু করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।সদস্য (মূসক বাস্তবায়ন ও আইটি) মোঃ এনায়েত হোসেন উপস্থিত সকলকে জানান, বর্তমানে এনবিআর তার সকল কার্যক্রমকে ব্যবসা ও করদাতাবান্ধব করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম চেম্বার পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, মোঃ আমজাদ হোসেন চৌধুরী, মোঃ সিরাজুল ইসলাম, ইডিইউ’র ভিসি সেকান্দর খান, বিজিএমইএ’র ১ম সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, বিকেএমইএ’র শওকত ওসমান, সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের এ. কে. এম. আকতার হোসেন, শিপ ব্রেকার্স এসোসিয়েশনের আমজাদ হোসেন চৌধুরী, এগ্রো বেইজড ইন্ডাষ্ট্রির রকিবুর রহমান টুটুল, ব্যবসায়ী নেতা তাহের সোবহান, কর আইনজীবী সমিতির মোঃ মুসা, হুদা ভাসী চৌধুরী এন্ড কোং’র শওকত হোসেন এফসিএ, রিহ্যাবের আবু সুফিয়ান, স্টীল রি-রোলিং মিলসের পক্ষে আনামুল হক ইকবাল, ইমরান উদ্দিন ও মনতোষ চন্দ্র রায়, খাতুনগঞ্জ ট্রেড এসোসিয়েশনের ছৈয়দ ছগীর আহমেদ, মটর পার্টস এন্ড টায়ার টিউব ব্যবসায়ী সমিতির কাজী ইমরান এফ. রহমান, দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশন’র সালামত আলী, ফ্রেশ ফ্রুটস এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশন’র মাহবুব রানা, ডীপ সী ফিশার্স এসোসিয়েশন’র হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, ক্ষুদ্র পাদুকা শিল্প মালিক গ্রুপের মনজু খান, মিষ্টান্ন ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির এনামুল আলম ও জুয়েলারী সমিতির স্বপন চৌধুরী।